সঙ্কেত ডেস্ক:ভারত জোড়ো ন্যায়যাত্রার নেতৃত্ব দিতে আপাতত অসমে রাহুল গান্ধী। একটি মন্দিরে যেতে গিয়ে বাধার মুখে পড়লেন রাহুল গান্ধী। আজই অযোধ্যার রামমন্দিরে রামলালার প্রাণপ্রতিষ্ঠা হয়। সেই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত ছিলেন কংগ্রেস নেতৃত্বও। তবে সেই অনুষ্ঠানে যাননি সোনিয়া গান্ধী, মল্লিকার্জুন খাড়গেরা। এদিকে রাহুল আজ সকালেই অসমের বাতদ্রব থান নামক একটি মন্দিরে যেতে চান।অসমের বৈষ্ণব পণ্ডিত শ্রীমন্ত শঙ্করদেবের জন্মস্থানে প্রার্থনা করতে যাচ্ছিলেন রাহুল গান্ধী। অসমের বর্দোভা থান একটি পবিত্র স্থান যা রাজ্যের নগাঁও জেলায় অবস্থিত। এটি শ্রীমন্ত শঙ্করদেবের জন্মস্থান বলে মনে করা হয়। তবে পুলিশ রাহুলকে আটকে দেয়।তবে পুলিশ রাহুলকে আটকে দিয়েছে বলে অভিযোগ।পুলিশ জানিয়েছে, ম্যাজিস্ট্রেটের নির্দেশ মতো দুপুর ৩টে পর্যন্ত কেউ মন্দিরে প্রবেশ করতে পারবেন না। এরপরই মন্দিরের বাইরে রাহুল-সহ কংগ্রেস নেতারা ধরনায় বসেন।’

মন্দিরে প্রবেশে বাধা পাওয়ার পর রাহুল জানান,”আপনারাই অনুমতি দিয়েছিলেন। এখন বলছেন ভিতরে যাওয়া যাবে না। আমি কী এমন অপরাধ করেছি, যে আমি মন্দিরে ঢুকতে পারব না!” এরপরই প্রধানমন্ত্রী মোদীর নাম না নিয়েও কটাক্ষের সুরে রাহুল বলেন, আজ মনে হয় একজনই মন্দিরে প্রবেশ করতে পারবেন।কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক জয়রাম রমেশ বলেছেন, রাজ্য সরকারের চাপে এসব হচ্ছে। রমেশের মতে, ‘দুই কংগ্রেস বিধায়ক মন্দির পরিচালনার কাছ থেকে সময় নিয়েছিলেন, মন্দিরের পরিচালকদেরও কোনও সমস্যা ছিল না কিন্তু এখন রাজ্য সরকারের চাপে এই সব করা হচ্ছে।’ জয়রাম রমেশ বলেছেন যে আগে আমাদের সকাল সাতটায় আসতে বলা হয়েছিল কিন্তু এখন বলা হচ্ছে আমরা বিকেল তিনটে পর্যন্ত মন্দিরে যেতে পারব না। এই গোটা ঘটনার পর রাহুল গান্ধী বলেছেন, দেশে শুধুমাত্র একজনকে মন্দিরে যেতে দেওয়া হচ্ছে।

সম্প্রতি অসমে রাহুল গান্ধীর বাস ঘিরে ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান তোলে কয়েকজন যুবক।আচমকাই উঠে পড়েন রাহুল।ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে, বাসের ভেতর বসে রয়েছেন রাহুল গান্ধী। আর বাইরে তখন জয় শ্রীরাম ধ্বনি। আচমকাই উঠে পড়েন রাহুল। এর তিনি বলেন, দরজা খোলো। এরপর দরজা খুলতেই তিনি নেমে পড়েন। ভিড়ের দিকে এগিয়ে যান তিনি।হিমন্ত বিশ্ব শর্মা থেকে শুরু করে অমিত মালব্য সেই ভিডিয়ো পোস্ট করে সোশ্যাল মিডিয়ায় রাহুল গান্ধীকে কটাক্ষ করেন।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *