সঙ্কেত ডেস্ক: কৃষ্ণনগরের পর আসানসোল। লোকসভা নির্বাচনের টিকিট কনফার্ম করলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এখানে ঘাসফুল ফুটিয়েছিলেন তিনিই। বাবুল সুপ্রিয়কে দলে নেওয়ার পর আসানসোলে উপনির্বাচন হয়। তখন বিহারীবাবু শত্রুঘ্ন সিনহাকেই আসানসোলে প্রার্থী করে তৃণমূল কংগ্রেস।বিহারী বাবুর কাঁধে ভার করে আসানসোল লোকসভার উপনির্বাচনেও ‘জোড়াফুল’ ফুটেছিল। সেই শত্রুঘ্ন সিনহাকেই আসানসোলে প্রার্থী করবে তৃণমূল কংগ্রেস। সূত্রের খবর, শুক্রবার পশ্চিম বর্ধমানের নেতাদের সাংগঠনিক বৈঠকে একথা জানিয়ে দিয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফলে এবারেও বড় চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে চলেছে বিজেপি।

বাবুল সুপ্রিয় বিজেপি থেকে তৃণমূলে আসার পর আসানসোলে উপনির্বাচন হয়। সেই নির্বাচনে শত্রুঘ্ন সিনহাকে প্রার্থী করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিজেপির দুবারের জেতা আসন ছিনিয়ে নেয় তৃণমূল। এর আগে তৃণমূল আসানসোলে জেতেনি।

শুক্রবার কেন্দ্রীয় বঞ্চনার বিরুদ্ধে রেড রোডে ধর্না শুরু করেন মমতা। মঞ্চের পিছনেই দুটি অস্থায়ী অফিস তৈরি করা হয়েছে। একটি সাংগঠনিক কাজের জন্য। অন্যটি প্রশাসনিক কাজের জন্য। ধর্নার মাঝেই পশ্চিম বর্ধমানের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানেই জানিয়ে দেন, আসানসোলে প্রার্থী হচ্ছেন শত্রুঘ্ন।আর এতেই খুশি রাজ্যের মন্ত্রী তথা আসানসোল উত্তর কেন্দ্রের বিধায়ক মলয় ঘটকও ৷ তিনি বলেন, “আমরা খুশি। আমরা আনন্দিত । শত্রুঘ্ন সিনহাকে পুনরায় প্রার্থী করা হচ্ছে । গতবার তিনি তিন লক্ষ ভোটে জিতেছিলেন । এবার আরও বেশী ভোটে জয়ী হবেন ৷”

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *