নিজস্ব প্রতিনিধি: সিএস (ড.) অ্যাড. MSME ডেভেলপমেন্ট ফোরাম পঃবঃ -এর সভাপতি মমতা বিনানি বলেছেন, “সম্প্রতি ঘোষিত কেন্দ্রীয় বাজেট ২০২৪-২৫ আমাদের ক্ষুদ্র, ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোগের (MSMEs) জন্য যথেষ্ট উল্লেখযোগ্য৷ গত আর্থিক বছরের ভিত্তিতে এই বাজেট আমাদের সেক্টরের মধ্যে প্রবৃদ্ধি এবং উদ্ভাবনকে উৎসাহিত করার প্রতিশ্রুতি প্রদর্শন করে। গুরুত্বপূর্ণ MSME সেক্টরে, ক্রেডিট গ্যারান্টি এবং বীমা স্কিমের মতো পদক্ষেপের যেমন স্বয়ংচালিত এবং ইলেকট্রনিক্সে ক্রেডিট ইনফ্লোকে ঝুঁকিমুক্ত করার উপর জোর দেওয়া প্রশংসনীয়। এই পদক্ষেপগুলি ঝুঁকির জন্য গুরুত্বপূর্ণ প্রয়োজনীয়তাকে সমাধান করে। ক্রেডিট অ্যাক্সেস আমাদের অগ্রগতির জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ এছাড়াও বিভিন্ন ক্ষেত্রে উপযোগী প্যাকেজ, সুদের সাবভেনশন স্কিম, এবং রিডিউসড কোল্যাটেরাল রিকোয়ারমেন্ট অ্যালাইন ভারতকে $৫ ট্রিলিয়ন অর্থনীতির দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার আমাদের সম্মিলিত ইচ্ছেকে ত্বরান্বিত করবে। সরলীকৃত নিয়ন্ত্রক পদ্ধতি, কম সম্মতি বোঝা, এবং মূলধন লাভ করের কাঠামোর সম্ভাব্য পরিবর্তনগুলি এমএসএমই সম্প্রদায়ের ক্ষমতায়নের জন্য একটি সক্রিয় পদ্ধতির ইঙ্গিত দেয়। ডিজিটাল কমার্স উদ্যোগের জন্য ওপেন নেটওয়ার্কের জন্য বাজেটের সমর্থন, ছাড়ের ট্যাক্স ব্যবস্থার সম্প্রসারণ এবং ‘রাইজিং অ্যান্ড এক্সিলারেটিং এমএসএমই পারফরম্যান্স’ স্কিমের জন্য বর্ধিত তহবিল আমাদের সেক্টরের বৃদ্ধিতে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখবে আশা করা যায়। এমএসএমই মন্ত্রকের জন্য তহবিলের বরাদ্দ, আগের অর্থবছরের চেয়ে বেশি, আমাদের উদ্যোগগুলির জন্য একটি ইতিবাচক পথ নির্ধারণ করে। উপসংহারে, এই বাজেটের ব্যবস্থাগুলি আমাদের এমএসএমই- দের ভাগ্যকে পুনর্নির্মাণ করার ক্ষমতা রাখার পাশাপাশি আনুষ্ঠানিকীকরণ, উদ্ভাবন এবং অভূতপূর্ব বৃদ্ধির জন্য অনুকূল পরিবেশ তৈরি করে।”

মমতা বিনানি এমএসএমই ডেভেলপমেন্ট ফোরাম – পশ্চিমবঙ্গের একজন সভাপতি। মিসেস বিনানি কর্পোরেট গভর্নেন্স এবং সিএসআর, ২০১৬ এর আইএসসিআই ন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ড ফর এক্সিলেন্স, ২০১৬ সালের দ্য ইনস্টিটিউট অফ ডিরেক্টরস-এর গোল্ডেন পিকক অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন। ২০১৬ সালে প্রশংসনীয় CSR কার্যকলাপের জন্য ASSOCHAM পুরস্কারের জুরি সদস্য হিসাবে কাজ করেছেন। তিনি কলকাতা ন্যাশনাল কোম্পানি ল ট্রাইব্যুনাল বার অ্যাসোসিয়েশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট, মার্চেন্ট চেম্বার অফ কমার্স-লিগ্যাল অ্যাফেয়ার্স কাউন্সিলের চেয়ারপার্সন এবং আইএনএসওএল ইন্ডিয়ার একজন নির্বাহী কমিটির সদস্য। তিনি ইন্টারন্যাশনাল উইমেনস ইনসলভেন্সি অ্যান্ড রিস্ট্রাকচারিং কনফেডারেশন (IWIRC) এর বোর্ড মেম্বার এবং বর্তমানে ইন্ডিয়া নেটওয়ার্কের কো-চেয়ার।

মিসেস বিনানী দেশের কিছু নামী বোর্ডের যথা সেঞ্চুরি প্লাই, বলরামপুর চিনি মিলস, ইমামি লিমিটেড ইত্যাদির একজন ইন্ডিপেন্ডেন্ট ডিরেক্টর। মিসেস বিনানী মনে করেন যে সরকার একটি ইঞ্জিন এবং সেই যন্ত্রের সদস্য হিসাবে, জনসাধারণ ও শ্রেণির কাছে সরকারের প্রচেষ্টাকে তুলে ধরা তাঁর দায়িত্ব।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *