সঙ্কেত ডেস্ক: কুয়াশার সঙ্গে মেঘলা। তার জেরে বীরভূমে পথ দুর্ঘটনা। ঘটনাস্থলে তিন মহিলাকে পিষে দিয়ে পালিয়েছে একটি ট্রাক। বাকি একজনের মৃত্যু হয়েছে হাসপাতালে।মঙ্গলবার সকালে দূর্ঘটনাটি ঘটেছে বীরভূমের রামপুরহাটের মুনসুবা মোড়ের কাছে রানিগঞ্জ-মোড়গ্রাম ১৪ নম্বর জাতীয় সড়কে। আহতদের উদ্ধার করে রামপুরহাট গভর্নমেন্ট মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা গিয়েছে, রামপুরহাটের চিতুরি গ্রাম থেকে একটি ইঞ্জিন ভ্যানে চেপে মাড়গ্রামে চাষের কাজ করতে যাচ্ছিলেন ১৫-১৬ জন শ্রমিক। মুনসুবা মোড়ের কাছে মল্লারপুরের দিক থেকে আসা একটি ম্যাটাডোর পেছন থেকে ভ্যানটিতে ধাক্কা মারে। সঙ্গে সঙ্গে ভ্যান থেকে ছিটকে রাস্তায় পড়ে যান ওই শ্রমিকরা। সেই সময় অপর একটি গাড়ি কয়েকজন শ্রমিককে চাপা দিয়ে চলে যায়। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তিন মহিলার। হাসপাতালে নিয়ে আসার পর মৃত্যু হয় আরও এক মহিলার। আহত ১১ জনের মধ্যে তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

পুলিশ জানিয়েছে, এদিন ভোরে মাঠে ধান কাটবেন বলে রামপুরহাটের চিতুরি থেকে বেরিয়ে ছিলেন শ্রমিকরা। একটি গাড়িতে ১৫ জন মিলে মাড়গ্রাম যাচ্ছিলেন। ট্রাকটি আসছিল মল্লারপুরের দিক থেকে। কিন্তু দৃশ্যমানতা কম থাকার কারণে, শ্রমিকদের গাড়িতে ধাক্কা মারে ট্রাকটি। চার মহিলা রাস্তায় ছিটকে পড়লে, তাঁদের তিনজনকে পিষে দিয়ে পালায় লরি।ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান রাসমনি সর্দার, লীলা লেট এবং রাখি সর্দার। এই ঘটনায় ১১ জন আহত হয়েছেন। তাঁদের রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, জাতীয় সড়কের উপর ভ্যান চলাচল নিষিদ্ধ। তবুও ভোরবেলা নিরাপত্তার ফাঁক গলে জাতীয় সড়কের উপর দিয়েই মাড়গ্রাম যাচ্ছিল এই ভ্যান।
ঘটনার পরই ম্যাটাডোরটিকে আটক করেছে রামপুরহাট থানার পুলিশ। তবে চালক ও খালাসি পলাতক। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *