নিজস্ব প্রতিনিধি, পশ্চিম মেদিনীপুর

ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড মৃত কমপক্ষে ৪২। জানা গিয়েছে, বুধবার ভোরে কুয়েতে এক আবাসনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড,যার জেরে প্রায় ৪২ জন মৃত।আর সেই তালিকায় পশ্চিমবঙ্গ এর একজন। পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার দাঁতন এর দ্বারিকেশ পট্টনায়ক। উল্লেখ্য তিনি তুরকা অঞ্চলের বাসিন্দা হলেও দীর্ঘ কয়েকবছর মেদিনীপুর এর শরৎপল্লীতে থাকেন।
এই মৃত্যু সংবাদ বাড়িতে আসতেই কান্নায় ভেঙে পড়েন গোটা পরিবার সহ এলাকার মানুষজন।
পরিবার মারফত জানা গিয়েছে,২৮ বছর আগে মুম্বাই থেকে বাহরিন,ও সেখান থেকে কুয়েত এ কাজের সূত্রে পাড়ি দেন এই ব্যক্তি।NBTC নামক কোম্পানির সুপারভাইজার হিসেবে নিযুক্ত হন তিনি।
জানা গিয়েছে, তিনি যে আবাসনে ছিলেন, সেখানে বুধবার ভোররাতে হঠাৎ আগুন লাগে।শত শত কর্মীর মধ্যে বাংলার ওই ছেলেও ছিলেন।এই অগ্নিকাণ্ডের জেরে সকলেই ভস্মিভূত হয়ে যান কয়েক মিনিট এর মধ্যেই। খুব অল্প সময়ের মধ্যে তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও প্রাণে বাঁচনো সম্ভব হয়নি।
এখনো পর্যন্ত ৪৯ জন মৃত বলে জানা গিয়েছে, তাদের মধ্যে বেশিরভাগই ভারতীয়। পশ্চিমবঙ্গ ছাড়াও তামিলনাড়ু, ঝাড়খণ্ড এর অনেক বাসিন্দা রয়েছে বলে খবর।
এই দুঃখজনক ঘটনা ফলে একসাথে এত সংখ্যক ভারতীয় মৃত্যু , শোকের পরিবেশ সৃষ্টি করেছে গোটা দেশ জুড়ে। সংশ্লিষ্ট ওই কোম্পানির পাশাপাশি ভারত সরকারের পক্ষ থেকে ক্ষতিপূরণ ঘোষণা করা হয়েছে।
জানা গিয়েছে, একমাত্র মেয়ের পড়াশোনা জন্য মেদিনীপুর শহরে চলে এসেছিলেন তিনি। বর্তমানে তার মেয়ে তাদদ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্রী। বৃহস্পতিবার দুপুরে তাদের বাড়িতে এই মৃত্যু সংবাদ এসে পোঁছায়।
জানা গিয়েছে, কোম্পানি থেকে আজ শুক্রবার ওই ব্যক্তির মৃতদেহ তার বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হবে।গ্ৰামের বাড়িতেই হবে শেষকৃত্য।
পরিবার এর সদস্যরা জানান, সংবাদ মাধ্যম এ জানতে পেরে কোম্পানি এর সাথে যোগাযোগ করলে তারা জানান সবাইকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে, কিন্তু পরে কোম্পানি থেকেই মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করা হয়‌।
এমন দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা কেউ সহজে মেনে নিতে পারছেন না। খবর পাওয়ার পর পরিবারের লোকজন দুশ্চিন্তাতে কাটালেও মৃত্যু সংবাদ পাওয়ার পর পরিবারের লোকজন দের সামলানো খুব কঠিন হয়ে পড়েছে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *