নিজস্ব প্রতিনিধি: মঙ্গলবার বার্নপুর নাগরিক মঞ্চ ও ব্যবসায়ী সমিতির পক্ষ থেকে বেশ কিছু দাবি নিয়ে বার্নপুর রেল স্টেশনের সামনে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করা হয়। এই সংগঠনের দাবি, করোনার সময় ধাপে ধাপে দূরপাল্লার ট্রেন গুলিকে বার্নপুর স্টেশনের স্টপেজ উঠিয়ে নেওয়া হয়েছে। অবিলম্বে এইসব ট্রেন গুলিকে বার্নপুর স্টপেজ দিতে হবে। তাছাড়াও প্রধানমন্ত্রী ‘অমৃত ভারত’ প্রকল্প থেকে বার্নপুর স্টেশনে উন্নয়নের করার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন, অন্যদিকে বিভিন্ন এক্সপ্রেস ট্রেন গুলির স্টপেজ বার্নপুর স্টেশন থেকে তুলে দেওয়া হল। তার ফলে যাত্রীদের আসানসোল বা অন্য কোন স্টেশন থেকে এই ট্রেন গুলি ধরতে হচ্ছে। সাধারণ মানুষকে হায়রান করা হচ্ছে কেন সেই নিয়ে আজ বার্নপুর রেল স্টেশনে কর্মসূচি পালন করা হয়।

এই প্রসঙ্গে তৃণমূল নেতা অশোক রুদ্র বলেন টাটা-ছাপরা, দক্ষিণ বিহার এক্সপ্রেস, পুরী-পাটনা, তাম্বারাম-নগাঁও এক্সপ্রেস, পাটনা-এর্নাকুলাম -তাম্বুরা-ডিব্রুগড়। এই সমস্ত গারির বার্ণপুর স্টেশনের স্টপেজটি সরানো হয়েছে। এর জন্য এক লক্ষ মানুষ অসুবিধায় পড়ছে। দেশের প্রধানমন্ত্রী যখন অমৃতভারত প্রকল্পের আওতায় বার্নপুর স্টেশনের মান বৃদ্ধি ও উন্নত করার জন্য বার্নপুর স্টেশনকে উন্নত করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, সেখানে নিম্নলিখিত স্টপেজগুলি সরিয়ে বার্নপুর স্টেশনের উন্নতির জন্য কী করা হচ্ছে তা দেখে আমরা বিস্মিত। ফলস্বরূপ, বার্নপুর থেকে আসানসোল স্টেশন পর্যন্ত এই ট্রেনগুলি ধরতে বিশেষ করে বয়স্ক, মহিলা এবং শারীরিকভাবে প্রতিবন্ধী, বিশেষ করে বার্নপুর এলাকার অসুস্থ ব্যক্তিদের উপর বোঝা চাপিয়ে অর্থনৈতিকভাবে রেল কর্তৃপক্ষের কী লাভ হবে। বার্নপুর এবং বার্নপুরের আশেপাশের এলাকার প্রচুর লোক এই নিম্নলিখিত ট্রেনগুলিতে নিয়মিত যাতায়াত করে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *