Sharing is caring!

সঙ্কেত ডেস্কঃ রাজনৈতিক মহলে জল্পনার অবসান ঘটিয়ে হল না মমতা শুভেন্ধু বৈঠক। নবান্নে লোকায়ুক্ত বৈঠকে থাকলেন না বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকরী। বৈঠকের আগেই লটুইট করে তাঁর বৈঠকে না থাকার কথা জানিয়েছেন বিজেপি বিধায়ক।মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডাকা এই বৈঠককে আগেই ‘অসাংবিধানিক’ আখ্যা দিয়ে না যেতে পারার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। তবে আজ সরাসরি টুইট করে বৈঠকে অনুপস্থিত থাকবেন বলে স্পষ্ট করে জানিয়ে দিলেন তিনি। এদিন টুইটে শুভেন্দু অধিকারী লিখেছেন, ”লোকায়ুক্ত, তথ্য কমিশনার, রাজ্য মানবাধিকার কমিশনে নিয়োগ সম্পর্কিত বৈঠকে থাকতে পারছি না। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের অসহযোগিতা এবং রাজ্যপালের ইস্যু করা নির্দেশ না মানার জন্যই এই বৈঠকে থাকতে পারছি না।”আগেও এই বৈঠক নিয়ে তাঁকে পর্যাপ্ত নথি না দেওয়ার অভিযোগ তুলেছিলেন শুভেন্দু। এদিন ফের একবার সেই বিষয়টি নিয়েই সরব বিরোধী দলনেতা। অপর একটি টুইটে এদিন শুভেন্দু অধিকারী লিখেছেন, ”তথ্য না দেওয়া এবং লোকায়ুক্ত, তথ্য কমিশনার, এসএইচআরসি চেয়ারম্যান নিয়োগের জন্য নোটিশ সংশোধন করার ক্ষেত্রে ব্যর্থতার জন্যই বৈঠকে যেতে পারছি না।”
আজ বিকেলে নবান্নে লোকায়ুক্ত, তথ্য কমিশনার, রাজ্য মানবাধিকার কমিশনের নিয়োগের জন্য বৈঠক ডাকা হয়েছে। রাজ্যপালের সুপারিশে বিরোধী দলনেতাকে ওই বৈঠকে আমন্ত্রণ জানানো হয়। তবে রাজ্যপালের নির্দেশ না মানা এবং রাজ্য সরকারের অসহযোগিতার কারণেই এদিনের বৈঠকে থাকতে পারছেন না বলে জানিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী।

উল্লেখ্য, লোকায়ুক্ত, তথ্য কমিশনার, রাজ্য মানবাধিকার কমিশনের সদস্যদের নিয়োগের বিষয়টি চূড়ান্ত করতে আজ নবান্নে বৈঠক ডাকা হয়েছে। আগেই এই বৈঠকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীকে। রাজ্যপাল জগদীপ ধনরকড়ের সুপারিশ মেনেই বিরোধী দলনেতাকে ওই বৈঠকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বলে জানায় রাজ্য। স্বরাষ্ট্রসচিব এই বৈঠকে চিঠি দিয়ে আমন্ত্রণ জানান বিরোধী দলনেতাকে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.