নিজস্ব প্রতিনিধি: দিল্লি পাবলিক স্কুল, দুর্গাপুরের প্রাক-প্রাথমিক শাখা ৬ ই জানুয়ারি শনিবার তাদের দশম বার্ষিক ক্রীড়া দিবস উল্লাস, উৎসাহ এবং বন্ধুত্বপূর্ণ পরিবেশের মধ্যে উদযাপন করে। স্কুলের অধ্যক্ষ শ্রী উমেশ চন্দ জয়সওয়াল মহাশয় তাঁর উজ্জ্বল উপস্থিতির মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানটি অলংকৃত করেন।
স্কুলের প্রি-প্রাইমারি কো অর্ডিনেটর মাননীয়া টিনা দাস একটি প্রাণবন্ত স্বাগত বক্তব্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা করেন। তিনি অভিভাবকদের নিরলস সমর্থন এবং অংশগ্রহণের জন্য অকুণ্ঠ প্রশংসা করেন। কচিকাঁচাদের জীবনে খেলাধুলার গুরুত্বকে তুলে ধরার পাশাপাশি ধৈর্য্য ও সাহসের সাথে জীবনের বিভিন্ন ক্ষেত্রে চ্যালেঞ্জের মোকাবিলা করার জন্য তাদের উৎসাহিত করেন।
এই বছরের একটি মাইলফলক ইভেন্টের সাক্ষী হওয়ার জন্য ৬০০ জন অভিভাবক স্কুল প্রাঙ্গণে উপস্থিত হয়েছিলেন। তারা প্রতিটি প্রতিযোগিতার ফলাফল জানার জন্য উদ্বিগ্নভাবে অপেক্ষা করেছিলেন।
প্রথম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের দ্বারা একটি প্রাণবন্ত গানের মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠানটি শুরু হয়েছিল। তারপর এলকেজি জুনিয়রদের দ্বারা একটি দর্শনীয় ড্রিল উপস্থাপন করা হয়। ‘বেবি শার্ক’ গানের সুরে জুনিয়ার হাঙররা মিছিল করার সাথে সাথে সবুজ মাঠটি হঠাৎ নীল ঢেউয়ে ভরে যায়। নার্সারির ছোট ছোট বাচ্চারাও তাদের সাজসজ্জা প্রদর্শনে এগিয়ে আসে। শিক্ষার্থীরা সকলেই ছিল মনোমুগ্ধকর এবং তাদের দেখার জন্য দর্শকরা উদগ্রীব হয়ে ছিল। ইউকেজি এবং প্রথম শ্রেণির লিটিল ডিনামাইটরাও তাদের জমকালো ড্রিলের মাধ্যমে ইভেন্টটি দর্শনীয় করে তোলে। বুলবুলের অসাধারণ নৃত্যে দর্শকরা মুগ্ধ হন।
ট্র্যাক ইভেন্টগুলিতে উত্তেজনার পারদ চড়তে থাকে এবং দর্শকরা উল্লাস প্রকাশ করে যখন এলকেজি, ইউকেজি এবং প্রথম শ্রেণির বাচ্চারা বাটার ফ্লাই রেস, ফ্রগ রেস, ব্যালেন্স দ্য স্মাইলি রেস ইত্যাদির জন্য মাঠে নামে। এটি সত্যিই একটি দুর্দান্ত প্রতিযোগিতা ভরা দিন ছিল। কারণ, প্রতিযোগীরা সকলেই জেতার জন্য ঝাঁপিয়ে ছিল। ছোটো পড়ুয়ারা প্রতিযোগিতাটিকে একটি অন্যমাত্রা দান করেছিল।
পদক ও পুরস্কারের মাধ্যমে বিজয়ীদের প্রশংসা করা হয়। প্রথম শ্রেণির শিক্ষার্থী জীভিকা টোডি ও গৌরবী জৈনের ধন্যবাদ জ্ঞাপনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানটির সমাপ্তি ঘটে। বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতাটি ছোটদের মন খুশিতে ভরিয়ে দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তাদের মধ্যে প্রতিযোগিতার একটি সুস্থ মনোভাব জাগিয়ে তোলার ক্ষেত্রে সফল হয়েছিল।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *