Sharing is caring!

রামকৃষ্ণ চ্যাটার্জী: আসানসোল:-ছেলের বাড়ি থেকে মেয়ের বাড়ির যাওয়ার পথে পথ হারিয়ে ফেলেন এক বৃদ্ধা। হীরাপুর থানার অন্তর্গত ইসমাইল এলাকায় ওই বৃদ্ধা অসুস্থতা অনুভব করায় নজরে আসে স্থানীয় বাসিন্দাদের। তারা প্রাথমিকভাবে বৃদ্ধাকে খাবার ও জল দেই তাকে।

একটু সুস্থ হওয়ার পর ঐ বৃদ্ধার অগোছালো মন্তব্য শুনে খবর দেওয়া হয় হীরাপুর থানায়। খবর পাওয়া মাত্রই বিলম্ব না করে হীরাপুর থানার পিসিআর ভ্যান পৌঁছায় ওই এলাকায়। পিসিআর ভ্যানে দায়িত্বে থাকা সাব ইন্সপেক্টর মোহাম্মদ আলী ওই বৃদ্ধাকে জিজ্ঞাসাবাদ করার পর বুঝতে পারেন তিনি স্থানীয় এলাকার বাসিন্দা। কিন্তু বৃদ্ধার বয়ান অনুযায়ী জানা যায় তিনি আসানসোল দক্ষিণ থানার বাসিন্দা, তার নাম ছবি গড়াই , তার বয়ান অনুযায়ী তিনি আসানসোল দক্ষিণ থানা এলাকার তাঁতি পাড়ার বাসিন্দা। কিন্তু কর্তব্যরত পুলিশ আধিকারিক অসহায় ওই বৃদ্ধা মহিলাকে ছেড়ে চলে যান নি। তিনি খোঁজ নেন যেমন করেই হোক ঐ বৃদ্ধা মহিলার প্রকৃত ঠিকানা বের করতেই হবে। ইতিমধ্যে এক পথচারী ওই মহিলাকে শনাক্ত করে জানান তিনি হীরাপুর থানার ইসমাইল এলাকার মানব সরণির এক ব্যক্তির বাড়িতে দেখেছেন।

কিন্তু ওই সরণি রাস্তা সংকীর্ণ হওয়ায় ওখানে পুলিশের গাড়ি পৌঁছানো সম্ভব ছিল না। আধিকারিক আলি বাবু স্থানীয় এক বাইক আরোহী কে অনুরোধ করে ওই বাইক আরোহীর বাইকে চেপে গলির মধ্যে প্রবেশ করেন, মানব সরণি নামে ওই গলির ভিতরে হন্যে হয়ে খুঁজে অবশেষে ঐ বৃদ্ধার মেয়ের বাড়ি তিনি সন্ধান পান। জানতে পারেন মেয়ের নাম মালা গড়াই। পরে ওই বৃদ্ধাকে নিয়ে গিয়ে তার মেয়ের হাতে তিনি তুলে দেন। এই ঘটনায় পুলিশের ভূমিকায় সাধুবাদ জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। বৃদ্ধার মেয়ে মালা গড়াই জানান, মানসিকভাবে সামান্য দুর্বল হয়ে পড়েছেন তিনি কিছু মনে রাখতে পারছেন না, তবে হীরাপুর থানার পুলিশের ভূমিকায় তিনি প্রশংসা করে বলেন পুলিশের কাছ থেকে এই সহযোগিতা তিনি জীবনে ভুলবেননা।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.