নিজস্ব প্রতিনিধি:শীতের মরশুম,সাথে ২৫শে ডিসেম্বর বড়দিন। আর তাই আসানসোলের অন‍্যতম পর্যটনকেন্দ্র মাইথন জলাধারে পর্যটকদের ভীড়। সোমবার ২৫শে ডিসেম্বর বড়দিনে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আগত মাইথন জলাধারে পিকনিকের আমেজে দেখা গেলো পর্যটকদের।কিন্তু ২৫ ডিসেম্বর থেকে জানুয়ারির শেষ পর্যন্ত মাইথন জলাধার ও জলাধার লাগোয়া কিছু এলাকায় যাওয়ার নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে।নিষেধাজ্ঞায় যেটা বলা হচ্ছে সেটা হল, ২৫ ডিসেম্বর থেকে ৭ জানুয়ারি, অন্য়দিকে ১৪ জানুয়ারি থেকে ৩১শে জানুয়ারি পর্যন্ত মাইথন জলাধারের রাস্তায় ব্যক্তিগত ও বাণিজ্যিক যান চলাচল করতে পারবে না। যে সমস্ত পর্যটকরা মাইথনে বেড়াতে আসবেন তাদের ছটঘাট ও কালীপাহাড়িতে গাড়ি রাখতে হবে। সেখানেই পার্কিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে।অন্যদিকে আসানসোল দুর্গাপুুর পুুুলিশ কমিশনারেট এলাকার বিভিন্ন পয়েন্টে পিকনিকের সময় যাতে কোনওভাবে বিপজ্জনক কোনও প্রবণতা না থাকে সেটা দেখার জন্য় বলা হয়েছে। কোথাও নৌকায় উঠে হইহুল্লোড় করা যাবে না।অন্যদিকে সালানপুর ব্লকের আওতায় থাকা চারটি খেয়াঘাটেও নির্দিষ্ট সময়ের পরে নৌকা ভ্রমণ করা যাবে না। মূলত বিকেল সাড়ে চারটের পরে এখানে নৌকা সফর আপাতত বন্ধ করা হয়েছে। যাবতীয় সুরক্ষা নিয়ে তারপরই নৌকায় উঠতে হবে। এক্ষেত্রে লাইফ জ্যাকেট পরে তাদের নৌকায় উঠতে হবে। কোনওভাবে নৌকায় অতিরিক্ত পর্যটকদের তোলা যাবে না। এতে বড় বিপদ হয়ে যেতে পারে।
এদিন রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে যেমন পর্যটকরা পিকনিক করতে আসে মাইথন জলাধারে, ঠিক তেমনই পার্শবর্তী রাজ্য ঝাড়খন্ডের বিভিন্ন প্রান্ত থেকেও পর্যটকদের আগমন ঘটে। পর্যটকরা সবুজ প্রাকৃতিক মনোরম পরিবেশের মাঝে থাকা মাইথন জলাধারে নৌকাবিহারে মেতে ওঠে। বলতে গেলে মনোরম পরিবেশে পিকনিকের আমেজ পর্যটকদের আগমনে জমজমাট হয়ে ওঠে মাইথন পর্যটন কেন্দ্র।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *