তারক হরি, পশ্চিম মেদিনীপুর:
রামলাল জঙ্গলমহল সহ মেদিনীপুর জঙ্গল লাগোয়া বিস্তৃত এলাকায় এই বিরাট দাঁতাল কে আট থেকে আশি সবাই চেনে। অন্যান্য দলছুট হাতিদের তুলনায় রামলাল প্রকাণ্ড সাইজের হলেও তার স্বভাব অত্যন্ত ধীর, এমনটাই এলাকাবাসীর দাবি। তবে কুল মাইন্ডের হলেও, খিদের সময় সে একটু বেপরোয়া হয়ে ওঠে।তবে কখনো তাকে মানুষের পেছনে রে রে করে তেড়ে যেতে তাকে দেখা যায়নি। দেখেছে রামলালের দাদাগিরি!
কখনো জাতীয় সড়কে দেখা গেছে তাকে রীতিমতো ডাকাবুকো স্টাইলে গাড়ি আটকে খাবার আদায় করছে, কখনো আবার মানুষজন কাউকে পরোয়া না করেই লোকালয়ে ঢুকে ধান অন্যান্য সবজি সাবাড় করে দিতে, সম্প্রতি কয়েকদিন আগেই এফসিআই গোডাউনে হানা দিয়েছিল রামলাল। সেখানে মানুষজনকে থোড়াই কেয়ার করে গোডাউনে সাটার ভেঙে বস্তা থেকে নিজের ভঙ্গিমায় তুলে নিচ্ছিল ধান এরপর নির্বিঘ্নেই সে তার দুলকি চালে এলাকা থেকে প্রস্থান করে।বৃহস্পতিবার ‘রামলাল’ এর বল পায়ে আজব কাণ্ডকারখানা দেখে অবাক হয়েছেন সকলেই।


এদিন মেদিনীপুর সদর ব্লকের চাঁদড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের ঢড়রাশোল বিবেকানন্দ ক্লাবের ফুটবল মাঠে ফুটবল প্র্যাকটিস করছিলেন স্থানীয় ক্লাবের খেলোয়াড়রা। হটাৎ রামলালের উপস্থিতি দেখে বল ফেলে সবাই দে দৌড়।
এদিকে রামলাল বল পেয়েই সে নানান কেরামতি দেখাতে থাকে।কখনও ব্যাক শর্ট, কখনও সামনের গোল পোস্ট লক্ষ্য করে সজোরে শর্ট, যেনো এক ফুটবলার রূপে নয়া অবতারে দেখা যায় তাকে। তবে তার এই কেরামতি দেখাতে গিয়ে দু দুটি বল ফাটিয়ে দিয়েছে। শেষ পর্যন্ত পায়ে বল নিয়ে দুলকি চালে কসরত করতে করতেই জঙ্গলে প্রবেশ করে।
কয়েক মিনিট গ্রামবাসী ও খেলোয়াড়রা রামলালের এই সকল কীর্তি দেখে হেসেই লুটোপুটি খান। কেউ কেউ আবার ক্যামেরাবন্দিও করেছেন। রামলালের এই নয়া কীর্তি এখন নেট মাধ্যমে শোরগোল পড়ে গিয়েছে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *