বিবাহ বার্ষিকীতে মানবিক মুখ দাম্পতির,বিশেষভাবে সক্ষমের হতে তুলে দিলেন ট্রাই সাইকেল

0

দেবব্রত বাগ- ঝাড়গ্রাম: বর্তমান সময়ে অনেকেই বিবাহবার্ষিকীর দিন বাড়িতে জমিয়ে খাওয়াদাওয়া করেন। কেউ কেউ ভালো কোনও রেস্টুরেন্টে যান বিশেষ দিনটি পালন করার জন্য। কিন্তু খুব কম মানুষ আছেন যারা একটু অন্য রকম ভাবেন। যেমন দাম্পত্য জীবনের ৩২ বছর পূর্ণ করলেন সুনীল রঞ্জন ও স্বাসতি খাটুয়া। তাঁরা প্রতি বছর তাঁদের বিবাহবার্ষিকীর দিনটি সমাজের দুঃস্থ মানুষদের জন্য কিছু একটা করার দায়িত্ব নেন। এই বছর এই দম্পতি এক অসহায় পরিবারের শারীরিক বিকলাঙ্গ বা বিশেষভাবে সক্ষম এক সন্তানকে আধুনিক হুইল চেয়ার বা ট্রাই সাইকেল দান করলেন। সুনীল রঞ্জন খাটুয়া, যিনি রাষ্ট্রয়ত্ব ব্যাঙ্কের ম্যানেজার ছিলেন। তাঁর বাড়ি ঝাড়গ্রাম জেলার গোপীবল্লভপুর ২ ব্লকের পেটবেন্ধি অঞ্চলের জ্যোতিগোবরা গ্রামে। সুনীলবাবু জানালেন, প্রতি বছরই তাঁদের বিবাহবার্ষিকী বা পরিবারের করোও জন্মদিনে তাঁরা অনুষ্ঠান করেন না। বরং সেই টাকায় গ্রামের দুঃস্থ মানুষদের জামাকাপড় বা প্রয়োজনীয় সামগ্রী প্রদান করেন। এবার এক শারীরিক প্রতিবন্দী যুবককে ট্রাই সাইকেল দিলেন। সুনীলবাবুর অর্ধাঙ্গিনী স্বাসতি খাটুয়াও স্বামীর মতো চিন্তাধারার মানুষ। এবার নিজের গ্রামের কয়েকজন ব্যক্তি তাঁদের প্রদীপ দে নামের এক শারীরিক প্রতিবন্দী যুবকের দুর্দশার কথা জানান। সে খবর পেয়েই তাঁরা সিদ্ধান্ত নেন যে ওই যুবককে একটি ট্রাই সাইকেল প্রদান করবেন। পরে সুনীলবাবুরা অবশ্য জানতে পারেন যে প্রদীপ আসলে তাঁদের দূরসম্পর্কের আত্মীয়। ব্যক্তিগত স্বার্থের উর্দ্ধে উঠে কেউ কেউ সমাজের কথা ভাবেন, দুঃস্থ অসহায় মানুষদের কথা ভাবেন। সুনীলবাবুরা সেরকমই একটি পরিবার। যারা গ্রামের শিশুদের পুজোর সময় নতুন জামাকাপড় তুলে দেন বা অসহায় শারীরিক প্রতিবন্ধী যুবককে বাঁচার নতুন হাতিয়ার তুলে দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *