সুনন্দা বিশ্বাস :-কালীঘাটের কাকু ওরফে সুজয়কৃষ্ণ ভদ্রকে নিয়ে টানাপোড়েন অব্যাহত। পাঁচদিন ধরে এসএসকেএম হাসপাতালে শিশুদের জন্য সংরক্ষিত আইসিসিইউ-তে ভর্তি থাকার পর মঙ্গলবার কেবিনে ফিরলেন কালীঘাটের কাকু। ৩ সদস্যের মেডিক্যাল টিমের রিপোর্টের পরেই কেবিনে কালীঘাটের কাকু।

নিয়োগ দুর্নীতির তদন্তে নেমে একটি কল রেকর্ড হাতে পেয়েছে ইডি। তদন্তকারীদের দাবি, কল রেকর্ডে থাকা কণ্ঠস্বরটি কালীঘাটের কাকু ওরফে সুজয়কৃষ্ণ ভদ্রের। তবে বিষয়টি প্রমাণ করতে হবে। সেই কারণেই কালীঘাটের কাকুর কণ্ঠস্বরের নমুনা সংগ্রহ জরুরি। তবে কণ্ঠস্বরের নমুনা সংগ্রহের ক্ষেত্রে বারবার বাধা আসছে বলে অভিযোগ ইডির। শারীরিক অসুস্থতার কারণ জানিয়ে গত চার মাস ধরে এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন সুজয়কৃষ্ণ ভদ্র।গত কয়েকমাসে একাধিকবার হাসপাতালে গিয়েও তাঁর কণ্ঠস্বরের নমুনা মেলেনি। ইডির অভিযোগ, এসএসকেএম কর্তৃপক্ষ নানা অজুহাতে সুজয়কৃষ্ণ ভদ্রের কণ্ঠস্বরের নমুনা সংগ্রহে তাঁদের বাধা দিচ্ছে। এমনকী চিকিৎসকদের সামনে কালীঘাটের কাকুর কণ্ঠস্বর সংগ্রহ করা হবে বলে জানালেও আপত্তি জানায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।কণ্ঠস্বরের নমুনা সংগ্রহের জন্য শুক্রবার কালীঘাটের কাকুকে আদালতের নির্দেশ মেনে জোকা ইএস‌আই হাসপাতালে নিয়ে যেতে চেয়েছিল ইডি। তার আগেই বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে তাঁকে কার্ডিওলজির আইসিইউতে স্থানান্তরিত করা হয়। এরপর থেকেই এস‌এসকেএম কর্তৃপক্ষের প্রতিটি পদক্ষেপের উপরে কার্যত নজর রেখেছিল ইডি। SSKM হসপিটালে বসে মেডিকেল বোর্ড মঙ্গলবার দিন সুজয় কৃষ্ণ ভট্টাচার্য এর জন্য।সূত্রের খবর সেই বৈঠক থেকেই আইসিসিইউ থেকে কেবিনে সুজয়কে স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। দেখার বিষয় কবে তৎপর হয় ইড।কালীঘাটের কাকুকে জোকা নিয়ে যাওয়ার জন্য।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *