Sharing is caring!

বিশেষ প্রতিনিধি: ভারতে ক্রমাগত বাড়ছে করোনার সংক্রমণ । সুস্থতার হার বেশি হলেও বিপুল সংখ্যক মানুষের সংক্রামিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে দেশ জুড়ে । এমত অবস্থায় প্রয়োজনের নিরিখেই আপদ কালীন ব্যবস্থা হিসাবে সময়ের আগেই দেশে আদতে পারে করোনা ভ্যাকসিন
এমনটাই মনে করছে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ । তাঁদের দাবি, সময়ের আগেই ভারতে আসতে পারে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন। যেহেতু এই রোগের প্রকোপ অত্যন্ত বেশি এবং বিপুল সংখ্যায় মানুষ এই রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন, তাই বিশেষ ভিত্তিতে করোনার ভ্যাকসিনে অনুমোদন দিতে পারে Indian Council of Medical Research। একে আপৎকালীন ব্যবহারের অনুমতি দেওয়া বলা যেতে পারে। মানুষের প্রাণ বাঁচাতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে।

Indian Council of Medical Research–এর প্রধান বলরাম ভার্গভ জানিয়েছেন, এই বিষয়ে সংসদের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলা হয়েছে। তাই প্রথমে স্থানীয় ভাবে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরির অনুমতি দেওয়া হতে পারে। ভারতের নিজের তৈরি ভ্যাকসিনের মধ্যে ZyCOV-D ও Covaxin রয়েছে। যা ভ্যাকসিনের পরীক্ষার দ্বিতীয় স্তর পর্যন্ত সফল ভাবে পৌঁছে গিয়েছে। এছাড়া, এদেশে অক্সফোর্ডের তৈরির ভ্যাকসিন ও রাশিয়ার তৈরি ভ্যাকসিনের হিউম্যান ট্রায়ালের কথা বলেছে প্রশাসন। এছাড়াও ভারতে তৈরি তৃতীয় একটি ভ্যাকসিনের কাজ শেষ পর্যায়ে রয়েছে বলে শোনা যাচ্ছে। সব মিলিয়ে তালিকা দীর্ঘ। কিন্তু মানুষ অপেক্ষা করছেন, কবে এই ভ্যাকসিন বাজারে আসবে, আর কবে মানুষ করোনা সংক্রমণের হাত থেকে মুক্তি পাবেন। সেরাম ইনস্টিটিউট অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিনের ট্রায়ালের দিকে নজর রাখছে। ভার্গভ জানিয়েছেন, একটি ভ্যাকসিন তৈরিতে ৬-‌৯ মাস সময় লাগে। কিন্তু সরকার যদি মনে করে আপৎকালীন পরিস্থিতিতে এই ভ্যাকসিন দেওয়া হবে, তাহলে তার আগেও সবটা সম্ভব।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.