সংবাদদাতা,কলকাতা: সারদার আরও ও একটি মামলায় স্বস্তি পেলেন তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ। গত ২০১৩ সালে পার্ক স্ট্রিট থানায় দায়ের হওয়া মামলায় এবার তাঁকে সম্পূর্ণ নির্দোষ ঘোষণা করল এমপি–এমএলএ বিশেষ আদালত।
লম্বা শুনানির পর অবশেষে এই মামলায় আজ। তাঁর বিরুদ্ধে ৪০৯ ধারাও প্রযোজ্য নয় বলে রায় দেয় আদালত। এই মামলায় কুণাল ঘোষকে অভিযোগমুক্ত করে রায় দিয়েছেন বিচারক জয়শঙ্কর রায়।তিনি বলেন, তৃণমূল মুখপাত্রের বিরুদ্ধে ৪০৯ ধারাও প্রযোজ্য নয়। যদিও এরআগে সারদা মিডিয়ার বেতন ও প্রভিডেন্ট ফান্ড সংক্রান্ত মামলা থেকে বেকসুর খালাস পেয়েছিলেন কুণাল।এছাড়া খারিজ হয়েছিল সাঁতরাগাছিতে দায়ের হওয়া সারদার আরও একটি মামলা।
অন্যদিকে কুণালের আইনজীবী অয়ন চক্রবর্তী তাঁর সওয়ালে বলেন, ‘‌৪০৯ ধারা তখনই কার্যকর হয়, যখন কোনও সরকারি কর্মচারী বা অফিসার সরকারি তহবিল তছরুপ করেন। এক্ষেত্রে তা নেই। কারণ কুণাল ঘোষ সরকারি কর্মচারী ছিলেন না। আর সারদার সঙ্গে সরকারি তহবিলের কোনও যোগ ছিল না।’‌ তাই শুনানি শেষে কুণাল ঘোষকে নির্দোষ বলে ঘোষণা করেছে আদালত। রায় ঘোষণার পর কুণাল তাঁর প্রাথমিক প্রতিক্রিয়ায় শুধু বলেছেন, ‘‘ঈশ্বর আছেন!’’

অন্যদিকে, রাজ্য পুলিশ কুণাল ঘোষের বিরুদ্ধে প্রতারণা ও বিশ্বাসভঙ্গের অভিযোগ আনায় ২০১৩ সালে তাঁকে গ্রেপ্তার করা করেছিল।রাজ্য পুলিশের বর্তমান আইজি রাজীব কুমারের নেতৃত্বে গঠন করা হয়েছিল সিট।মামলার তদন্তে নেমে রাজীব কুমারের নেতৃত্বধীন সিট গ্রেপ্তার করেছিল বর্তমান তৃণমূল মুখপাত্রকে। তাঁকে দীর্ঘসময় কাটাতে হয়েছিল জেলে।পরে অবশ্য তিনি জামিন পেয়েছিলেন।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *