নিজস্ব প্রতিনিধি,ঝাড়গ্রাম: বৃহস্পতিবার ঝাড়গ্রাম শহরের ঘোড়াধরা স্টেডিয়ামে প্রশাসনিক সভা থেকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ২৩৪ টি প্রকল্পের উদ্বোধন ও শিলান্যাস করেন । সেই সঙ্গে সরকারি পরিষেবা প্রদান করেন। তিনি প্রথমে সৃষ্টিশ্রী স্টল পরিদর্শন করেন। এরপর অনুষ্ঠান মঞ্চে এসে ২৩৪ টি প্রকল্পের মধ্যে ৯৫ টি প্রকল্পের উদ্বোধন এবং ১৩৯ টি প্রকল্পের শিলান্যাস এর পর তিনি আদিবাসী গুণীজনদের সংবর্ধনা জানান। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সাহিত্যিক কালিপদ সরেন ওরফে খেরওয়াল সরেনকে বঙ্গবিভূষণ সম্মান দিয়ে সম্মান জানান। সারদা প্রসাদ কিষ্কু স্মৃতি পুরস্কার তুলে দেন গোরা চাঁদ মুর্মুর হাতে, সাধু রাম চাঁদ মুর্মু স্মৃতি পুরস্কার তুলে দেন দুবাই টুডুর হাতে, পন্ডিত রঘুনাথ মুর্মু স্মৃতি পুরস্কার তুলে দেন যতীন টুডু ও প্রসেনজিৎ মান্ডির হাতে, বিরসা মুন্ডা স্মৃতি পুরস্কার তুলে দেন সুভাষ হাঁসদার হাতে, সিধু কানু স্মৃতি পুরস্কার তুলে দেন লক্ষী মান্ডির হাতে, সুনীল দাস কে মরণোত্তর সম্মান দেওয়া হয়, তার পুত্র রাহুল দাসের হাতে সেই সম্মান তুলে দেওয়া হয়। এরপর মুখ্যমন্ত্রী আদিবাসী সমাজের বিভিন্ন সংগঠনের হাতে তুলে দেন ধামসা, মাদল , স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ সমিতির উদ্যোগে চোখের আলো প্রকল্পের চশমা, জাতীয় শংসাপত্র, যুবশ্রী, রূপশ্রী, লক্ষ্মীর ভান্ডার, জমির পাট্টা, ভবিষ্যৎ ক্রেডিট কার্ড, সবুজ সাথী প্রকল্পের সাইকেল, হাতির হামলায় মৃত ব্যক্তির পরিবারের সদস্যের চাকরির নিয়োগ পত্র সহ একাধিক সরকারি পরিষেবা উপভোক্তাদের হাতে তুলে দেন মুখ্যমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রীর প্রশাসনিক সভায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাথে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মুখ্য সচিব বিপি গোপালিকা, সচিব ছোটেন লামা, রাজ্যের মন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেন, শ্রীকান্ত মাহাত, মন্ত্রী বীরবাহা হাঁসদা, ঝাড়গ্রাম জেলা পরিষদের সভাধিপতি চিন্ময়ী মারান্ডি, জেলাশাসক সুনীল আগরওয়াল ও পুলিশ সুপার অরিজিৎ সিনহা, বিধায়ক দুলাল মুর্মু, দেবনাথ হাঁসদা, ডাঃখগেন্দ্রনাথ মাহাত, ঝাড়গ্রাম পৌরসভার চেয়ার পার্সন কবিতা ঘোষ সহ আরো অনেকে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *